Published On: Wed, Jan 9th, 2019

নতুন মন্ত্রিসভার তালিকা দেখে অবাক হয়েছি: ফারুকী

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয়ের পর আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন সরকারের মন্ত্রিসভার তালিকা দেখে তিনি কিছুটা অবাক হয়েছেন জনপ্রিয় নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে ফারুকী তার ফেসবুক ভেরিফায়েড পেজে এমনটাই জানান।

তিনি ফেসবুকে লিখেন- ‘গত কিছুদিন ইয়াং এজ রোমান্টিক মুডে আছি। একটা কাজের প্রয়োজনে অবশ্য। অন আ ডিফরেন্ট নোট, গতকাল থেকে একটু পত্রিকা দেখার সময় পাইলাম। চোখ বুলাইয়া নিলাম কারা দেশ পরিচালনার দায়িত্ব পাইলেন সেই তালিকার উপর। কিছু কিছু নাম বাদ পড়াটা অবশ্যই ভালো খবর। কিছু নাম না দেখে একটু অবাক হইছি, মনে হইছে কিছু সিনিয়র থাকতে পারতেন। আমি যে জগতের সেখানকার মানুষের অনুপস্থিতিটা একটু চোখে লাগছে।’

বর্তমান মন্ত্রীদের প্রশংসা করে এই নির্মাতা আরও লিখেন- ‘তবে ভালো লাগলো, অনেক ইয়াং ব্লাড দেখে। অনভিজ্ঞতার কিছু ঝুঁকি থাকলেও এর সৌন্দর্য হলো অনভিজ্ঞ মন নতুন সম্ভাবনা তৈরি করতে পারে। নতুন রাস্তায় হাঁটতে পারে।

‘তবে কি আমরা কিছুটা পরিবর্তন আশা করতে পারি রাজনৈতিক আবহাওয়াতেও, কিছুটা সহনশীলতা?’ সবশেষ এমন প্রশ্নও রাখেন এই নির্মাতা।

উল্লেখ্য, এবারের মন্ত্রীসভা প্রধানমন্ত্রীসহ ৪৭ জন নিয়ে গঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকাল সাড়ে তিনটায় প্রধানমন্ত্রী, ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী এবং ৩ জন উপমন্ত্রীকে শপথ পড়িয়েছেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ।

আরও পড়ুন-

আগের মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়লেন যে ২৩ মন্ত্রী

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- গঠিত হচ্ছে ৪৬ সদস্যের মন্ত্রিসভা। এই মন্ত্রিসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী ও ৩ জন উপমন্ত্রী থাকছেন।

রোববার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. শফিউল আলম এ তথ্য জানান। নতুন মন্ত্রীসভার তালিকায় সদ্য সাবেক মন্ত্রিসভার বেশিরভাগ সদস্যই বাদ পড়েছেন। এর মধ্যে একমাত্র জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম মারা গেছেন।

নতুন মন্ত্রিসভায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ; বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয় প্রধানমন্ত্রীর নিজের কাছে রেখেছেন।

আগের মন্ত্রীসভায় পূর্ণ মন্ত্রী ছিলেন ২৯ জন। যাদের ২৩ জনই এবারের মন্ত্রীসভায় জায়গা পাননি। এরা হলেন-

১. আবুল মাল আব্দুল মুহিত- অর্থ মন্ত্রণালয়

২. আমির হোসেন আমু- শিল্প মন্ত্রণালয়

৩. তোফায়েল আহমেদ- বাণিজ্য মন্ত্রণালয়

৪. বেগম মতিয়া চৌধুরী- কৃষি মন্ত্রণালয়

৫. মোহাম্মদ নাসিম- স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়

৬. খন্দকার মোশাররফ হোসেন- স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়

৭. রাশেদ খান মেনন- সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়

৮. ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন- গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়

৯. মুহাঃ ইমাজ উদ্দিন প্রামাণিক- বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়

১০. হাসানুল হক ইনু- তথ্য মন্ত্রণালয়

১১. আনিসুল ইসলাম মাহমুদ- পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়

১২. আনোয়ার হোসেন- পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়

১৩. নূরুল ইসলাম নাহিদ- শিক্ষা মন্ত্রণালয়

১৪. শাজাহান খান – নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়

১৫. মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, বিবি- দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়

১৬. আবুল হাসান মাহমুদ আলী- পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

১৭. মোঃ মুজিবুল হক- রেলপথ মন্ত্রণালয়

১৮. মোস্তাফিজুর রহমান- প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়

১৯. আসাদুজ্জামান নূর- সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়

২০. শামসুর রহমান শরীফ- ভূমি মন্ত্রণালয়

২১. মোঃ কামরুল ইসলাম- খাদ্য মন্ত্রণালয়

২২. নারায়ণ চন্দ্র- মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রণালয়

২৩. এ. কে. এম শাহজাহান কামাল- বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রণালয়