Published On: Mon, Jan 7th, 2019

অস্ট্রেলিয়া জয় ক্যারিয়ারের সেরা সাফল্য : কোহলি

দীর্ঘ সাত দশকের ইতিহাস বদলে দিয়েছেন বিরাট কোহলি। তার নেতৃত্বে প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট সিরিজ জয় করল ভারত। ক্যারিয়ারের বহু সাফল্যের ভিড়ে এই জয়কেই সেরা সাফল্য দাবী করেছেন ভারত অধিনায়ক।সিডনিতে বৃষ্টির বাগড়ায় সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্টটি অমীমাংসিত ভাবে শেষ হয়। ফলে ২-১ ব্যবধানে ভারতের সিরিজ জয় নিশ্চিত হয়ে যায়।

কবিরাজ : তপন দেব । এখানে আয়ুর্বেদিক ঔষধের দ্বারা নারী- পুরুষের সকল জটিল ও গোপন রোগের চিকিৎসা করা হয়। দেশে ও বিদেশে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – খিলগাঁও, ঢাকাঃ। মোবাইল : ০১৮২১৮৭০১৭০ (সময় সকাল ৯ – রাত ১১ )

২০১৪ সালে এই সিডনিতেই ভারতের দায়িত্ব নিজ কাঁধে তুলে নেন কোহলি। তার চার বছরের মধ্যে এই সিডনিতেই ভারতের প্রথম অধিনায়ক হিসেবে অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট সিরিজ জয়ের বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি তুলে ধরেন ৩০ বছর বয়সী কোহলি।এই সাফল্যে দারুণ উচ্ছ্বসিত পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসে ঘোষণা করলেন, ‘এটা আমার ক্যারিয়ারের সেরা সাফল্য।’

কবিরাজ : তপন দেব । এখানে আয়ুর্বেদিক ঔষধের দ্বারা নারী- পুরুষের সকল জটিল ও গোপন রোগের চিকিৎসা করা হয়। দেশে ও বিদেশে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – খিলগাঁও, ঢাকাঃ। মোবাইল : ০১৮২১৮৭০১৭০ (সময় সকাল ৯ – রাত ১১ )

২০১১ সালে মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারত। সেই দলের কনিষ্ঠতম সদস্য ছিলেন কোহলি। সেই স্মৃতি মনে করে কোহলি আরো বলেছেন, ‘২০১১ সালে আমরা যখন বিশ্বকাপ জিতেছিলাম, তখনকার সেই দলটায় আমিই ছিলাম সর্বকনিষ্ঠ সদস্য। আমার চারপাশের মানুষগুলোকে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়তে দেখেছিলাম। তবে, আমি নিজে কিন্তু সে ভাবে ব্যাপারটা উপলব্ধি করতে পারিনি। অস্ট্রেলিয়ায় এটা আমার তৃতীয় সফর। এতদিন ভারতীয় ক্রিকেট দল যা পারেনি এ বার আমরা সেটাই করে দেখালাম। স্বভাবতই এই সাফল্যের জন্য আমরা গর্বিত।’

কবিরাজ : তপন দেব । এখানে আয়ুর্বেদিক ঔষধের দ্বারা নারী- পুরুষের সকল জটিল ও গোপন রোগের চিকিৎসা করা হয়। দেশে ও বিদেশে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – খিলগাঁও, ঢাকাঃ। মোবাইল : ০১৮২১৮৭০১৭০ (সময় সকাল ৯ – রাত ১১ )

এই অস্ট্রেলিয়া জয় ক্রিকেট বিশ্বে ভারতকে নতুনভাবে তুলে ধরবে জানিয়ে কোহলি বলেছেন, ‘নির্দ্বিধায় বলতে পারি, এই জয় আমাদের দলকে নতুন পরিচিতি এনে দেবে। ভবিষ্যতে এই কীর্তির পুনরাবৃত্তি ঘটাতে ভারতীয় ক্রিকেটের তরুণ প্রজন্মকে এই ফল বাড়তি উত্সাহ দেবে।’