Published On: Thu, Nov 8th, 2018

পাঁচ লাখ শিক্ষক কর্মচারী পাবেন ইনক্রিমেন্ট ও বৈশাখী ভাতা

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগমুহূর্তে এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের জন্য ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট ও বৈশাখী ভাতার ঘোষণা দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গণভবনে বিভিন্ন ট্রাস্টের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এ ঘোষণা দেন। গতকাল রাতে কালের কণ্ঠকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সময়ই শিক্ষকদের পাশে দাঁড়ান। আবারও তিনি সেটা প্রমাণ করলেন। প্রধানমন্ত্রী শিক্ষকদের জন্য বার্ষিক ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট ও সরকারি চাকরিজীবীদের মতো ২০ শতাংশ বৈশাখী ভাতার ঘোষণা দিয়েছেন।

মন্ত্রী বলেন, এখন অর্থ মন্ত্রণালয় প্রধানমন্ত্রীর এ ঘোষণা কার্যকর করবে। আমরা আগামী রবিবার এ ব্যাপারে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলব। শিক্ষকদের জন্য এত বড় ঘোষণা আসায় আমি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকেও তাঁদের অভিনন্দন জানাচ্ছি।

জানা যায়, দেশে বর্তমানে এমপিওভুক্ত স্কুল, কলেজ ও মাদরাসার সংখ্যা প্রায় ২৮ হাজার। এসব প্রতিষ্ঠানে প্রায় পাঁচ লাখ শিক্ষক-কর্মচারী রয়েছেন। তাঁদের ইনক্রিমেন্টের জন্য বছরে বাড়তি ৫৩১ কোটি ৮২ লাখ ৩৯ হাজার টাকা লাগবে। আর বৈশাখী ভাতার জন্য লাগবে ১৭৭ কোটি ২৭ লাখ ৪৯ হাজার টাকা। সরকার ২০১৫ সালে অষ্টম বেতন কাঠামোর আওতায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য বৈশাখী ভাতা চালু করে। কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বাংলা নববর্ষে তাঁদের মূল বেতনের ২০ শতাংশ হারে এ ভাতা পান। ওই বেতন কাঠামোতেই আগের সিলেকশন গ্রেড ও টাইমস্কেলের বিধান বাতিল করে ৫ শতাংশ হারে বার্ষিক বেতন বৃদ্ধি বা ইনক্রিমেন্টের নিয়ম চালু করে।

এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা অষ্টম বেতন কাঠামো অনুযায়ী মূল বেতন পেলেও ইনক্রিমেন্ট ও বৈশাখী ভাতা থেকে এত দিন বঞ্চিত ছিলেন। এ জন্য তাঁরা নানা আন্দোলন-সংগ্রামও করেছেন। অবশেষে নির্বাচনের আগে বেসরকারি শিক্ষকদের দাবি মেনে নিল সরকার।