Published On: Wed, Nov 7th, 2018

আজ ঢাকা থেকে রাজশাহী বাড়ি ফিরছিলাম দেখি একটি বৃদ্ধা মহিলা বাসের

ঢাকা থেকে রাজশাহী- জানালা দিয়ে মুখ বাহির করে কাদছে…আজ ঢাকা থেকে রাজশাহী বাড়ি ফিরছিলাম দেখি একটি বৃদ্ধা মহিলা বাসের জানালা দিয়ে মুখ বাহির করে কাদছে আর বলছে বাবু আমাকে কতি পাঠাচ্ছিস আমাকে নিয়ে যা ,বাবু আমাকে নিয়ে যা বাপ বলছে আর কাদছে ।

আমি বাসে তার সিটে গিয়ে বসলাম,ততো খনে বাসটি ছেড়ে দিয়েছে। দেখি বৃদ্ধা মহীলা টি কেদেই চলেছে।আমি ওনাকে শান্তো করার চেষ্টা করলাম অনেক খন পর মহিলা টি আমাকে বললো বাবা পানি হবে ?

আমি বললাম মা আমিতো রোজা আছি মা সামনে কথায় গাড়ি থামুক আমি পানি এনে দিচ্ছি।আমি বৃদ্ধাকে জিগাস করলাম বাবু কে ? সে যেটা বললো সেটা শুনে আমি পুরা হতাস! হয়ে গেলাম বাবু আর কেউ নয় তার নিজের ছেলে।

তাকে ডাক্তার দেখানার নাম করে বাসে উঠিয়ে দিয়ে পালিয়েছে।ছেলের বউ তাকে অত্যাচার করে প্রায় প্রতিদিন কিন্তু তার ছেলে কিছুই বলে না । তাকে বাহিরে শুতে দেয়।

খাবার বেলা সকালে ১টা বিস্কট দুপুরে এক গাস ভাত রাতে একটি রুটি খেতে দেয়। বাড়ির ভিটা টা তার নামে ছিল ৫ দিন আগে সেটাও লিখিয়ে নিয়েছে তারা। তাই তার ছেলে তাকে এখানে বাসে তুলে দিয়ে পালিয়েছে।

হায়রে হতভাগা সন্তান! কিছু সময়ের জন্য গাড়িটি থামলো আমি পানি আনতে গেলাম, পানি নিয়ে এসে বৃদ্ধা কে জিগাসা করলাম আপনাকে যদি আমি একটি বৃদ্ধা শ্রমে রেখে আশি থাকবেন কি?

সে বললো হু থাকমু বাবা। তাকে রাজশাহীর একটি বৃদ্ধাশ্রমে রেখে আসলাম। হায়রে হতভাগা সন্তান ! যে মায়ের পায়ের নিচে তোর বেহেস্ত, যে কিনা তোর জন্মের পরে নিজে না খেয়ে তোকে খায়াইছে অাজ তার সাথে এমন করতে পারলি? একদিন তোমারো এমন সময় অাসবে….

মোঃমিজান খান

দৈনিক সময় ডেস্ক রির্পোট

ফেজ বুক থেকে সংগৃহীত ও অাপডেট করা হয়েছে।